সুলতান মনসুর: একের ভিতর দুই

রাজনীতি

সুলতান মনসুর: একের ভিতর দুই

image
Sun, October 23
02:06 2016

এস এম ফারুকী:


ණ☛ ডাকসুর ভিপি ও ছাত্রলীগের সভাপতি। স্বাধীনতার পর তিনি ছাড়া আর কারো নামের সাথে একসাথে এ দু’ দুটো পদবীর জায়গা হয়নি। স্বাধীনতার পূর্বেও কেবল একজনই এমন বিরল পরিচয় পেয়েছিলেন, তিনি তোফায়েল আহমেদ। স্বাধীনতার আগে পরে মিলিয়ে কেবল তারা দুজনই হচ্ছেন ছাত্রলীগের এমন সভাপতি যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ঢাকসু) ভিপিও ছিলেন। তোফায়েল আহমদের সাথে আরো এক জায়গায় মিল আছে সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদের সাথে। তাদের দুজনেরই পা পড়েছে জাতীয় সংসদে।


অমিলও আছে, তোফায়েল আহমেদ মন্ত্রী হয়েছেন, সুলতান মনসুর মন্ত্রী হতে পারেননি। ‘এক-এগারো’ ঝড় না হয়ে এলে এ পরিচয়টাও হয়তো এতোদিনে পাওয়া হয়ে যেতো সুলতান মনসুরের।


ණ☛ পঁচাত্তরের পনেরো আগস্ট ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যখন সপরিবারে হত্যা করেছিলো তখন প্রতিশোধের আগুনে জ্বলে উঠেছিলেন সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। বদলা নিতে অস্ত্রও তুলে নিয়েছিলেন হাতে। বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসা এখনও সেই একই রয়ে গেছে সুলতান মনসুরের। তবে বঙ্গবন্ধুর দল থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়েছেন তিনি। দায়ী ঐ ‘এক এগারো’ই।


ණ☛ বাংলাদেশের রাজনীতিতে ঝড় হয়ে আসা ‘এক-এগারো’তে ভেঙে গিয়েছিলো রাজনৈতিক দলগুলোর সুখের ঘর। ঝড়ো হাওয়া অবিশ্বাসের দোলায় দুলিয়ে দিয়েছিলো রাজনৈতিক সংগঠনগুলোকে। অনেকেই সেটাকে সুযোগ হিসেবে নিয়েছিলেন। সুলতান মনসুরের অনুসারীরা মনে করেন, সেই কেউ কেউই সুলতান মনসুরের জন্য আওয়ামী লীগের মনে বিষ ঢুকিয়ে দিয়েছিলেন। তারা মনে করেন, সুলতান মনসুরের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের প্রতি ঈর্ষান্বিত কেউ কেউই নেত্রীর কান ভারি করেছিলেন সুলতান মনসুরের বিরুদ্ধে।


ණ☛যে কারণেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের এ সৈনিকের ভাগ্যে জুটে ‘সংষ্কারপন্থি’র তকমা। তারই ফলে দল থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়েন এ ক্যারিশমাটিক নেতা। ‘এক-এগারো’ অনেক কিছুই পাল্টে দিয়েছে সুলতান মনসুরের জীবনে।


ණ☛ এক এগারো না এলে এবারের সম্মেলনেই হয়তো আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকত একটি নাম- সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ। হয়তো আলোচনা হতো প্রেসিডিয়াম বডিতে জায়গা পাবেন কি না সে নিয়ে। এমনকি সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আলোচনায়ও হয়তো তার নাম থাকতো। সিলেটের পত্র-পত্রিকাগুলো জল্পনার গল্প আঁকতো, ‘সুলতান মনসুর কি এবার সাধারণ সম্পাদক হচ্ছেন?’ কিংবা ‘সিলেটের সুলতান কি হাল ধরবেন নৌকার?’ কিন্তু এমন গল্প লিখতে পারছে না সিলেটের কলমগুলো। সেই সব কলমের কালির মাঝে তাই যেনো কি এক বেদনা লুকিয়ে আছে। অপার সম্ভাবনা নিয়ে ধূমকেতুর মতো যে মানুষটি বাংলাদেশের রাজনীতিতে আবির্ভূত হয়েছিলেন, তাকে নিয়ে এমন স্বপ্ন দেখতে পারছে না বলে মাঝে মাঝে কি সে কলমগুলোও থেমে যাচ্ছে না?


ණ☛ নিউজ অর্গান টুয়েন্টি ফোর ডট কম’র সাথে কথা হয় সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের। সম্মেলন নিয়ে কিছু বলতে চাননি তিনি। সেটা তার অভিমান কিনা, স্পষ্ট হয়নি। তবে বললেন, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের হয়ে তার লড়াই কখনও থামবে না। জানালেন, বঙ্গবন্ধুর যে আদর্শকে নিয়ে রাজনীতির পথে তার চলার শুরু মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সে আদর্শকে বুকে লালন করে যাবেন।


ණ☛ তিনি বললেন, পদ থেকে তাকে হয়তো সরিয়ে দেওয়া যেতে পারে। কিন্তু মানুষের হৃদয় থেকে তাকে কখনও সরিয়ে দেওয়া যাবে না। মানুষের সে ভালোবাসাই এখনও স্বপ্ন দেখায় সুলতান মনসুরকে।

লেখাটি ৩২৭৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৬৪৪৩৬০৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৯৪ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা
Changer.com - Instant Exchanger