বিচিত্রতা

বীরগঞ্জে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়ীতে অনশন

image
Sat, May 6
09:34 2017

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর প্রতিনিধি:


ණ☛ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ১ প্রেমিকা বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়ীতে অনশন করছে ৪ দিন ধরে, বিয়ে ছাড়া অন্যকিছু হলে আত্যহত্যার হুমকি প্রেমিকার। উপজেলা নিজপাড়া ইউনিয়নের দেবীপুর গ্রামের মঙ্গলু ইসলামের কন্যা লিমা খাতুনের অভিযোগে জানা যায়, প্রতিবেশী মাষ্টারপাড়া গ্রামের মফিজুল ইসলামের পুত্র সাফিউল ইসলাম বিয়ের প্রলভোন দেখিয়ে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে প্রতারনার আশ্রয় নিয়ে তাদের সম্পর্কের কথা সফিউলের বন্ধু আবদুয়ালের পুত্র ফয়সাল জানালে সে এলাকা বাসীদেরকে ঘটনাটি জানিয়ে দেয়।


ණ☛ ঘটনাটি জানাজানি ও প্রতারনার কারনে সে গত ২৮ এপ্রিল দুপুরে বিয়ের দাবীতে সাফিউলের বাড়ীতে গিয়ে উঠে। এসময় সাফিউলের মা মহসেনা, ভাই রতন, চাচী সুলতানা, খালা আরজিনা তাকে মারধর করে টেনে হিচরে বাড়ী হতে বের করে দিলে সে বাড়ীর সামনে অবস্থান নিয়ে অনশন করে।


ණ☛ এব্যাপারে লিমার বাবা মঙ্গলু জানায়, গত ২৬ এপ্রিল দুপুরে তার কন্যা বিষপান করে আত্যহ্যার চেষ্টা করে। বাড়ী লোকজন তাকে উদ্ধার করে বীরগঞ্জ সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে। ২৮ এপ্রিল ছাড়াপেয়ে সে সকলের অগোচরে সাফিউলের বাড়ী গিয়ে উঠে। পরে তারা ঘটনাটি জানতে পারে।


সংবাদ পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য ঘটনাস্থলে গিয়ে রাতে তাকে উদ্ধার করে আপোস মিসাংসার কথা বলে বাড়ীতে পৌছে দেয়।


ණ☛ লিমার মা জানায়, স্থানীয় ভাবে গন্যমান্যর আপোস মিসাংসার চেষ্টা চালালেও লিমা বিয়ের ছাড়া অন্য কোন আপোস মানতে নারাজ। বিয়ে ছাড়া আপোস করা হলে লিমা আত্যহত্যা করার হুমকি দিচ্ছে। তাই বাধ্য হয়ে মেয়ের জীবনের স্বার্থে আমরা আইনের আশ্রয় নিতে পারি। এ ঘটনাটি এলাকায় চাল্টর‌্য সৃষ্টি করেছে।

লেখাটি ১৩৯৬ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৬৯৪০৫৮৮৪

অনলাইন ভোট

image
ধর্ষণ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় আপনি কি মনে করেন ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ২৭ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা