রাজনীতি

২০০+ পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়েছে 'আলোকিত সমাজ"

image
Sun, June 25
05:46 2017

আসলামুর রহমান:


ණ☛ রাত পোহালেই ঈদ। ঈদ মানেই খুশি আর আনন্দ। এই দিনে ধনী-গরীব সবাই যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী মেতে উঠে ঈদ আনন্দে। থাকে নানারকম পোষাক আর বিশেষ খাবারের আয়োজন। সমাজে কিছু মানুষ থাকে যাদের স্বাদ আছে কিন্তু সাধ্য নেই। ঈদের দিনও অনেকেরই সাধারণ দিনের মতই যায়।কারণ করতে পারেনা বাজার তাই ছেলে-মেয়ের মুখে দিতে পারেনা বিশেষ কিছু খাবার।





এরকম ২০০+ পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে "মানবসেবায় আমরা" স্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'আলোকিত সমাজ-অনলাইন গ্রুপ,বক্তারপুর, কালিগঞ্জ, গাজীপুর। এবারের ঈদ বাজারে ছিল- চাউল,তৈল,চিনি,সেমাই,দুধ আর একটি করে মুরগী।


গাজীপুরের কালিগঞ্জ থানার প্রায় ৮টি গ্রামের ২০০+ পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেন সংগঠনটি। ঈদ বাজার হাতে পেয়ে অনেকেই আনন্দে কেঁদে ফেলেন। রতন নামের একজন বাজার পেয়ে বুকে জড়িয়ে ধরেন সংগঠনের সদস্যকে এবং দোয়া করেন সংগঠনের জন্য। এছাড়াও প্রত্যেকে এই কার্যক্রম দেখে মুগ্ধ হয়েছে।





গ্রুপের অন্যতম এডমিন খাইরুল হাসান সজীব মোল্লা বলেন- আল্লাহর রহমতে আমরা "আলোকিত সমাজ অনলাইন গ্রুপ" প্রথম বারের মত বক্তারপুর ইউনিয়নের প্রায় ২০০+ গরীব অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য ,একদল তরুণ দামাল ছেলে এবং প্রবাসীদের সহযোগিতায় ঈদ বাজার তুলে দিয়েছি।





আলেকিত সমাজ ১০ টি মূল উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করে থাকে। যার মধ্যে গরীব অসহায়দের মাঝে ঈদ বাজার বিতরণ অন্যতম। রক্তদান একটি চলমান কাজ। তিনি আরও বলেন-এই ধরনের কাজ আলোকিত সমাজ আজীবন করবে। আলোকিত সমাজ দেশবাসীর কাছে দোয়া চায় যাতে সামনে সারা বাংলাদেশে কাজ করতে পারে।

লেখাটি ৫৯৬ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৩২৭২৮০৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৫১ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা