রাজনীতি

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় বাগডিসির “পানতা-ইলিশ” অনুষ্ঠান

image
Wed, July 5
01:02 2017

রফিকুল ইসলাম আকাশ , ভার্জিনিয়া, যুক্তরাষ্ট্র থেকে:


ණ☛ গত ২রা জুলাই, ২০১৭ রোজ রবিবার বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি’র(বাগডিসি) আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল প্রবাসে এক ভিন্নধর্মী আয়োজন “পানতা-ইলিশ” অনুষ্ঠান। সামাজিক, সাংগঠনিক এবং সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ বিপুল লোক সমাগমে শতরুপা বড়ুয়া ও এ্যান্থনী পিউস গমেজর সঞ্চালনায় শুরুতেই উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাগডিসি’র প্রেসিডেন্ট এটর্নী মোহাম্মদ আলমগীর । এরপর বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে দুই দেশের প্রতি আনুগত্য ও শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা হয়।





এরপর শুরু হয় আয়োজিত মূল অনুষ্ঠান। শুরুতেই উদ্বোধনী নৃত্য পরিবেশন করে ছোট্ট মনি- শ্রুতি, লিয়া, লোরেন, মুন, আর্চি, মাত্রী, শ্রেয়া ও র‍্যাচেল। অতঃপর গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি’র সাংস্কৃতিক অঙ্গনে বিশেষ অবদান রাখার জন্য এবং তাদের কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ নাসের চৌধুরী , আশীষ বড়ুয়া, মেরিনা রহমান, মোহাম্মদ মজিদ ও দিব্য বড়ুয়াকে বাগডিসি’র পক্ষ থেকে সম্মাননা জানিয়ে ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। এরপর পরিবেশিত হয় আয়োজিত অনুষ্ঠানের বিশেষ পর্ব “আনন্দধারা”।





পরিবেশিত বিভিন্ন গানের মধ্য দিয়ে সাম্য, শান্তি এবং অসাম্প্রদায়িকতার উপর আলোকপাত করা হয়েছে, যা ছিল বর্তমানের প্রেক্ষাপটে খুবই উপযোগী পরিবেশনা। এপর্বে অংশগ্রহণ করেন- মুন্নি মন্ডল, অসীম রানা, জুয়েল বড়ুয়া , শারমিন ইসলাম টগর, মানবেন্দ্র মন্ডল, লাবণী বড়ুয়া , পান্না বড়ুয়া , রবিউল আলম রবি, তানুশ্রী দত্ত, মাহিন সুজন, সুমিত্রা বড়ুয়া, নাসের চৌধুরী, সরোজ বড়ুয়া, অমৃত বড়ুয়া সীমা খান, জলি জামান এবং শম্পা বনিকসহ শিশু শিল্পী অপ্সরা, ঐশী, এশাল, অদ্রিজা, অদ্রিতি, অধরা, অবন্তি, সারগাম, মাইশা, মেহেক, ইশান, দিয়ত্রী বড়ুয়া এবং মম। এছাড়া পরিবেশিত হয় কাওয়ালী এবং ব্যান্ড-এর গান। ব্যান্ডে সঙ্গীত পরিবেশন করেন তুষার রহমান। অনুষ্ঠানের দৃষ্টিনন্দন নৃত্য পরিবেশনায় ছিলেন সিন্থিয়া গোমেজ, ইরা ইসলাম এবং চুরী। নৃত্যের কোরিওগ্রাফীতে ছিলেন সিন্থিয়া গোমেজ এবং “তা থৈ” ড্যান্স গ্রুপের শ্রীদত্তা ব্যানার্জি।





এরপর প্রয়াত অন্যতম জনপ্রিয় শিল্পী লাকি আখন্দ ও কালিকা প্রসাদ ভট্টাচার্যের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন করে পরিবেশিত হয় তাদের গান নিয়ে একটি বিশেষ পর্ব। এছাড়া শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় সদ্য প্রয়াত ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম মহান সঙ্গীতকার সুধীন দাস গুপ্তের প্রতি। সব শেষে অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষন ছিল বাংলাদেশের জাতীয় পর্যায়ের জনপ্রিয় লোকসঙ্গীত শিল্পী অনিমা মুক্তি গোমেজ-এর সঙ্গীত পরিবেশনা- এপার বাংলা, ওপার বাংলায় লোকসঙ্গীতে যিনি বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছেন এবং বিভিন্ন মঞ্চসহ দেশের জনপ্রিয় টিভি চ্যানেলে লোকসঙ্গীত শিল্পী এবং লোকসঙ্গীতের বিচারক হিসেবে অবদান রেখে যাচ্ছেন।





অনুষ্ঠান পরিকল্পনা ও পরিচালনায় ছিলেন বাগডিসি’র কালচারাল সেক্রেটারি শম্পা বনিক, শব্দ নিয়ন্ত্রণে শান্তনু বড়ুয়া ও কেনী বিশ্বাস, মঞ্চসজ্জা পরিকল্পনায়- শম্পা বণিক, মঞ্চসজ্জা নির্মান ও অলংকরণ- মোঃ হারুনুর রশিদ, সহযোগিতায় নাইম রহমান, আবু সরকার, এনায়েত এবং সরোজ বড়ুয়া। যন্ত্রশিল্পী ছিলেন- তবলায় আশীষ বড়ুয়া, বাঁশীতে মোহাম্মদ মজিদ, ভায়োলিনে দিব্য বরুয়া, গীটারে শুভ, কীবোর্ডে কেনী বিশ্বাস এবং মন্দিরায় জয় বড়ুয়া। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটির প্রস্তুতি এবং আয়োজনে যারা বিশেষভাবে সাহায্য করেছেন, তারা হলেন- জুয়েল বড়ুয়া, বাবুল বণিক এবং অসীম বড়ুয়া। মোট ৫৫ জন শিল্পী, কলাকুশলী এবং যন্ত্রীদের সমন্বয়ে পরিবেশিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি সবার মন কেড়ে নেয়।


“পানতা-ইলিশ” অনুষ্ঠানে যেমন ‘খুশি তেমন সাজো’, বিভিন্ন পর্বে ক্রিড়া প্রতিযোগিতা ও রাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়। ক্রীড়া পরিচালনায় ছিলেন জনাব মাহফুজুর রহমান, সহযোগিতায় তৌফিক হাসান, রাহাত এবং চুরী। রাফেল ড্র তে প্রথম পুরস্কার- ৫৫ ইঞ্চি ইনসিগ্নিয়া টিভি, জিতে নেন গুলশানারা নাইম, দ্বিতীয় পুরস্কার লিনোভো ল্যাপটপ- জিতে নেন প্রিয়বাংলার প্রিয়লাল কর্মকার এবং তৃতীয় পুরস্কার- ১০ ইঞ্চি ইনসিগ্নিয়া ট্যাবলেট, জিতে নেন জনাব হারুনুর রশিদ।





অনুষ্ঠানস্থলে তাজা তাজা ইলিশ ভাজা এবং পান্তা ভাত আয়োজনে ছিলেন বাগডিসির উপদেষ্ঠা কবির পাটোয়ারী এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট পারভীন পাটোয়ারী, ২০ রকমের ভর্তা প্রস্তুত করেছেন- ভাইস প্রেসিডেন্ট পারভীন পাটোয়ারী, গুলশানারা নাইম, ফাহমিদা হোসেন শম্পা এবং সুলতানা পারভীন, বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট রোকসানা পারভীন। এছাড়া আরও যারা এ পরিবেশনায় বিশেষভাবে সাহায্য সহযোগিতা করেন, তারা হলেন- নাইম রহমান, এটিএম আলম, করিম সালাউদ্দিন, মোহাম্মদ মোস্তাফা, রোমিও হক, শওকত আকরাম, মিসেস জেবুন্নেসা এবং জসীমসহ আরও অনেকে।


অনুষ্ঠানের ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় সকল অংশগ্রহনকারীদের অনুপ্রাণিত করে পুরস্কার প্রদান করা হয়- স্পন্সর রিয়েলটর জনাব মজিবুল হক। এছাড়া অনুষ্ঠানের শিশু শিল্পীদেরও অনুপ্রাণিত করার জন্য বিশেষ উপহার প্রদান করা হয়- স্পনসর ছিলেন জনাব মোহাম্মদ মোস্তাফা। এছাড়া অনুষ্ঠানটির অফিসিয়াল ফটোগ্রাফার ছিল ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার জনপ্রিয় “মোমেন্টস ফটোগ্রাফী” এবং ভিডিওগ্রাফীতে ছিলেন রফিকুল ইসলাম আকাশ। এছাড়া পুরো অনুষ্ঠানটি সফলভাবে আয়োজন করার জন্য বাগডিসি’র কার্যকরী পরিষদের সদস্যবৃন্দ সার্বিকভাবে প্রয়াস অব্যাহত রেখেছেন এবং সাফল্যের সাথে অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন করেছেন।





বাগডিসি’র পক্ষ থেকে যারা অনুষ্ঠানটির আয়োজনে পৃষ্ঠপোষকতা করে সাহায্য করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জনানো হয়েছে, তারা হলেন- “পানতা-ইলিশ” অনুষ্ঠান স্পন্সর ডাটা এন টেক (শিরিন আক্তার,সিইও), ডাটা গ্রুপ ইউএসএ (জাকির হোসেন,সিইও), পিপল এন টেক(আবুবকর হানিপ) এবং জনপ্রিয় স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল জি বাংলা।


ভিন্ন মাত্রার বনভোজনের আনন্দ আয়োজনে যেমন ছিল মুখরোচক খাবার, তেমনি ছিল মন মাতানো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান- প্রবাসী বাংলাদেশীদের এমন মিলন মেলা সত্যিই প্রানস্পর্শী, মেলায় ফুটে উঠেছে এক দেশীয় অনুভূতি, দেশীয় আমেজ, দেশীয় সংস্কৃতির ছোঁয়ায় যেন সবাই আচ্ছন্ন হয়ে গিয়েছিল। ব্যস্ত জীবনধারার মাঝে এটি ছিল একটু ভিন্ন ধারার আনন্দ আয়োজন- প্রকৃতির কোলে, খোলা আকাশের নীচে অনুপম পরিবেশে বাংলার গ্রামীন ঐতিহ্যকে বুকে ধারণ করে এ যেন ছিল স্বদেশের টানে আবিষ্ট হয়ে শেকড়ের টানে গ্রামের মাটিতে ফিরে যাওয়া।

লেখাটি ২৮২ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৫৪১১১৯২৯



অনলাইন ভোট

image
জনগণের নয়, বিচারকদের প্রজাতন্ত্রে বাস করছি, সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হকের এ বক্তব্যের সাথে আপনি কি একমত?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৪৮৪ জন

আজকের উক্তি

আট বছরে আট মিনিটের জন্যও রাজপথে উত্তাপ না ছড়ানোর ব্যর্থতায় বিএনপির টপ-টু-বটম নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত: ওবায়দুল কাদের