অর্থ বাণিজ্য

দিনমজুরের সবজি চাষে সংসারে সফলতা

image
Wed, August 9
02:22 2017

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:


ණ☛ এক সময় অন্যের বাড়িতে দিন মজুরি দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত মাহাবুর রহমান। নিজের জমি বলতে মাত্র ১৭ শতক। এ জমিও ছিল এক সময় পরিত্যক্ত অবস্থায়। এক বেলা খেয়ে না খেয়ে পরিবারের ৪ সদস্যকে নিয়ে দিনযাপন করত হত মাহাবুর রহমানকে। কিন্তু ব্যতিক্রম ঘটিয়েছেন তিনি। তিনি এবছর পরিত্যক্ত ওই ১৭ শতক জমিতে পটল চাষ করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এলাকার সবাইকে। এলাকায় পরিচিত লাভ করেছেন সফল সবজি চাষী হিসেবে। এনেছেন সংসারের সচ্ছলতা। সফল এ কৃষক মাহাবুরের বাড়ি লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার কমলাবাড়ি ইউনিয়নের বড়কমলাবাড়ি গ্রামে।


ණ☛ সরেজিমন ঘুরে সফল এ কৃষক মাহাবুরের সাথে কথা বলে জানাগেছে, মাত্র ১৭ শতক জমিই এখন একমাত্র বেঁচে থাকার সম্বল। তিনি পটল চাষ করে সফলতা পেয়েছে। তিনি আরও জানান, প্রতি সপ্তাহে এ জমি থেকে আড়াই মণ পটল উত্তোলন করে বাজারে বিক্রি করে থাকেন। প্রতিমণ পটলের বর্তমান বাজার মূল্য এক হাজার টাকা। সপ্তাহে এ জমি থেকে তার আয় হয় প্রায় আড়াই হাজার টাকা। আর এ পটল ক্ষেতের সার ও ওষুধ বাবদ খরচ হয় এক হাজার টাকা। মাস শেষে তিনি এ জমি থেকে ৬ থেকে ৮ হাজার টাকা মুনাফা করে থাকেন। এভাবেই এই ১৭ শতক জমি থেকে ৬ মাস (ভাদ্র মাস) পর্যন্ত পটল বিক্রি করবেন বলে জানান তিনি। এরপর এ জমিতে আলু চাষাবাদ করবেন। এখন আর অন্যের বাড়িতে দিনমজুরি করতে হয়না তাকে।


ණ☛ শুধু মাহাবুর রহমানই নয়, সবজি চাষ করে কমলাবাড়ি ইউনিয়নের অনেকেই সংসারের সচ্ছলতা ফিরে এনেছেন। আবার এ এলাকার করলা মতিন, পেঁপে ইউনুস সবজির নামকরণে পরিচিত লাভ করেছেন।


ණ☛ আদিতমারী উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ বিপ্লব কুমার মোহন্ত জানান, কমলাবাড়ির উৎপাদিত সবজি এলাকার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় চলে যাচ্ছে। শুধু কমলাবাড়িই নয়, উপজেলার সর্বত্রই নানা ধরনের সবজির চাষাবাদ হচ্ছে, এতে করে সেখানকার কৃষকদের মধ্যে সচ্ছলতাও ফিরে এসেছে বলে দাবী করেন এ কর্মকর্তা।

লেখাটি ১৬৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৩২৭২৭৯৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৫১ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা