রাজনীতি

তিন হত্যাকারী একজোট হয়েছে: মাহমুদুর রহমান, ভিডিও সহ

image
Wed, September 13
06:30 2017

নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম:

ණ☛দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমান বলেছেন, , ‘তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের স্ত্রী এবং তুরস্কের ফাস্ট লেডি এমিনে এরদোগান রোহিঙ্গা মুসলমানদের দুর্দশা দেখতে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর কঠোর সমালোচনা করে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাওয়া নিয়ে মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘এটাই স্বাভাবিক। সম্ভবত এতদিনে রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে যাবার জন্য দিল্লীর অনুমতি পাওয়া গেছে।’

ණ☛ মিয়ানমারে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর গণহত্যা ও জাতিগত নিধন প্রক্রিয়া চলছে দাবি করে তিনি বলেন, ‘দিল্লীর হুকুমের যেসব দাস বিষয়টি এখনও বুঝতে পারছেন না তাদের জন্য গণহত্যা ও জাতিগত নিধনের নতুন সংজ্ঞা দিতে হবে।’

ණ☛ আমার দেশ সম্পাদক আরও বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মিয়ানমার সফর শেষে দেশে ফিরে দাবি করেন যে, মিয়ানমারে উগ্র সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। মোদীর এমন বক্তব্যের পরপরই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ে বক্তব্য দেন এবং এর পরই পুলিশের এক বড় কর্মকর্তাও সন্ত্রাসবাদ নিয়ে বক্তব্য দেন। এভাবেই একটি সম্পূর্ণ মানবিক বিষয়কে সন্ত্রাসবাদের দিকে ঠেলে দেয়া হলো।’

ණ☛ মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ভারত বাংলাদেশের এককোটি মানুষকে আশ্রয় দিয়েছিলো,মুক্তিযোদ্ধাদের ট্রেনিং দিয়েছিলো এবং অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করেছিলো। এর ফলে ভারতের লক্ষ্য পাকিস্তান ভাগ করা সফল হয়েছিলো, আমরাও স্বাধীনতা লাভ করেছিলাম। একটা উইন উইন পরিস্থিতি হয়েছিলো। এটাই বাস্তবতা, এটাই ইতিহাস।’

ණ☛ তিনি বলেন, ‘শ্রীলংকার ক্ষেত্রেও ভারত তামিল টাইগারদের অস্ত্র, আশ্রয় ও ট্রেনিং দিয়ে প্রথম দিকে সাহায্য করেছিলো। পরে অবশ্য ভারত তার অবস্থান থেকে সরে আসে, কারণ তামিল টাইগাররা স্বাধীনতা লাভ করলে তামিল অধ্যুষিত ভারতেও স্বাধীনতা আন্দোলন চাঙ্গা হয়ে উঠতে পারে। অথচ রোহিঙ্গা মুসলমানদের বেলায় ভারতের অবস্থান একেবারে ভিন্ন। রোহিঙ্গারা যদি মুসলমান না হয়ে হিন্দু হতো, মোদী কখনোই মিয়ানমার সফর থেকে ফিরে সন্ত্রাসবাদের গল্প বলতো না।’

ණ☛ মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘মিয়ানমার, ভারত ও বাংলাদেশের ক্ষমতায় ৩ হত্যাকারী। তারা একজোট হয়েছে। গুজরাটের হত্যাকারী মোদী, মিয়ানমারে গণহত্যাকারী সুকি ও বাংলাদেশের মানুষের অধিকার হত্যাকারী শেখ হাসিনা।’

ණ☛ রোহিঙ্গা মুসলমানদের ব্যাপারে ক্ষমতাসীন দল ও অন্যান্য রাজনীতিবিদদের মধ্যে এখনও সংহতি না আসলেও বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে সংহতি সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মাহমুদুর রহমান। তিনি বলেন, ‘এখন সবার উচিত জনগণকে এক করা। যদিও ২০১৪ সালের একতরফা ও প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের মাধ্যমে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারী আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের ঐক্যে ভয় পায়।’

ණ☛ রোহিঙ্গা মুসলমানদের মানবেতর পরিস্থিতিতে যারা আবেগতাড়িত হচ্ছেন তাদেরকে নিয়ে যারা উপহাস করেছেন-তাদের উদ্দেশ্যে মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘আবেগ ছাড়া কোনও মানুষ হয় না, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে কী আবেগ ছিল না?’



সোমবার বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীকের সঞ্চালনায় রাউন্ডটেবিল ডিসকাশন অন ন্যাশনাল সলিডারিটি ফর দ্যা রোহিঙ্গা আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।



রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এই গোলটেবিল আলোচনা হয়। গোলটেবিল বৈঠকটির সভাপতিত্ব করেন, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ।



অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসনাত চৌধুরী, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) সাখাওয়াত হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, হেফাজতে ইসলামের নেতা শাহ ওয়ালিউল্লাহ হাফেজ্জি, সাবেক যুগ্ম ও দায়রা জজ ইকতেদার আহমেদ, কবি আবদুল হাই শিকদার,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি ও বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. সুকোমল বড়ুয়া, বাংলাদেশের মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন অধিকারের সম্পাদক আদিলুর রহমান খান, সাবেক সচিব মোফাজ্জল করিম, , বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শওকত মাহমুদ, বাংলাদেশ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ব্লগার ও মানবাধিকার কর্মী ডাঃ পিনাকী ভট্টাচার্য, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী প্রফেসর ড. দিলারা চৌধুরী, ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানাসহ বিশিষ্ট নাগরিকেরা।

লেখাটি ৬৮৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Video




Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৫৪১১৪৫০৯



অনলাইন ভোট

image
জনগণের নয়, বিচারকদের প্রজাতন্ত্রে বাস করছি, সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হকের এ বক্তব্যের সাথে আপনি কি একমত?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৪৮৪ জন

আজকের উক্তি

আট বছরে আট মিনিটের জন্যও রাজপথে উত্তাপ না ছড়ানোর ব্যর্থতায় বিএনপির টপ-টু-বটম নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত: ওবায়দুল কাদের