রাজনীতি

সুষমা বন্ধনা করতে গিয়ে বিএনপিকে আক্রমন কেন?

image
Mon, November 6
02:41 2017

মেজর (অব.) মো. আখতারুজ্জামান:

ණ☛ সকালে ঘুম থেকে উঠে চা এর সঙ্গে প্রতিদিন পড়ছিলাম। মেজর জেনারেল অব এ কে মোহাম্মদ আলী শিকদারের কলামটি আগ্রহ নিয়ে পড়লাম। শিকদার সাহেব ভাল লেখেন। বলেনও ভাল। ভারতের পক্ষে উনার লেখাগুলি খুবই সরাসরি। উনার সবচেয়ে ভাল দিক হল উনি যে ভারতের পক্ষে এবং স্বার্থে লেখেন সে ব্যপারে কোন লুকোচরি করেন না। উনি উনার সব লেখাই শুরু করেন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে যাতে পাঠক বা শ্রোতার মনে ধারনা জন্মে তিনি সর্বান্তকরনে পাকিস্তান বিরোধী। উনার দ্বিতীয় অবস্থান হলো তিনি বিএনপি বিরোধী যার ফলে উনার লেখায় এবং বলায় বিএনপি এবং বিএনপির নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধ সরাসরি বক্তব্য থাকবেই। তৃতীয় বৈশিষ্ট হলো তিনি সরকারের এবং সরকারীদলের বিরুদ্ধেও বলবেন যাতে সরকার দলীয় বা সরকারের লোক বা সরকারের দালাল জাতীয় কিছু বলে জনগন যেন তাকে দোষারোপ না করে।

ණ☛এই তিনটি বিষয় তার সকল বক্তব্যে বা লেখার সুরুতে থাকবেই। ৬ই নভেম্বর ২০১৭ সনের লেখাতেও তা পরিস্কার আছে। আজকের লেখাতে এসব কিছু আলোচনা করে লেখার শেষে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সাম্প্রতিক বাংলাদেশ সফরে জনগনে প্রতাশা পুরন হয়েছে বলে সার্টিফিকেট দিয়ে দিলেন। শিকদার সাহেব রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারতের অবস্থান পরিস্কার করার জন্য নগ্নভাবে ভারতের অবস্থানকে ব্যাখ্যা করেছেন যা শুধুমাত্র ভারতীয় কাউকেই মানায়। তিনি রোহিঙ্গা ইস্যুতে অত্যান্ত উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে চীনকে টেনে এনে তাদেরকে দায়ী করার চেষ্টা করছেন যা খুবই দুরভীসন্ধীমুলক।

ණ☛জেনারেল শিকদার আমাদেরকে সাবধান করে বলেছেন যেখানে ভারত আমাদের পাশে থাকবে সেখানে নাকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জাপানও থাকবে। বিশ্বরাজনীতিতে এই সমিকরন তিনি কোথায় পেলেন তবে ভারতকে গুরুত্ব দিতে হলে ভারতের পাশে মার্কিন যুক্তরাষ্ট ও জাপানকে রেখে বাংগালকে হাইকোর্ট দেখাতে হবে এই দৃষ্টিভঙ্গিতে জেনারেল শিকদার শতভাগ সঠিক। সেই সঙ্গে তিনি জাতীকে সাবধান করে দিয়েছেন যেন রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানের জন্য আমরা কোথাও না যাই। ভারতই সব কিছু করে দিবে। আমাদেরকে ভারতের পাশে থাকাটাই ভাল হবে।

ණ☛ তিনি তার আজকের লেখায় এবারের সফরে সুষমা স্বরাজ তিস্তা পানি নিয়ে কোন কথা না বললেও আমাদের বিলুপ্ত রক্ষী বাহিনীর অফিসার পরবর্তী সেনাবাহিনীর জেনারেল শিকদার সুষমা স্বরাজের তিস্তার পানির ব্যাপারে নিরবতাকেও অত্যান্ত ইতিবাচক হিসাবে মুল্যায়ন করেছেন। জেনারেল শিকদার মনে করেন সুষমা স্বরাজের তিস্তার পানির হিস্যা দেয়ার ব্যাপারে নিরবতাই প্রমান করে যে বর্তমান সরকারের মেয়াদ কালেই নাকি মোদি সাহেব তিস্তা চুক্তি স্বাক্ষর করবেন। তবে পানি দিবে কিনা তা অবস্য শিকদার সাহেব কিছু বলেন নি। ব্র্যাভো বন্ধু ব্র্যাভো। চালিয়ে চান। ভারতের দালালী কোন অপরাধ নয় বরং নব্য দেশপ্রেমের জলন্ত সনদ যা আমরা সবাই এখন পাওয়ার জন্য উদগ্রীপ। আপনি কয়েক ধাপ এগিয়ে আছেন তাই আমাদের হিংসা আর কি!!

সাবেক সংসদ সদস্য।

লেখাটি ১১৫২ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৬২৪৯২৬৮৯

অনলাইন ভোট

image
রোডম্যাপহীন নির্বাচনের দিকে এগোচ্ছে দেশ- মাহমুদুর রহমান মান্নার এ বক্তব্য যথার্থ বলে মনে করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৪০ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা