বিচিত্রতা

দোয়ারায় বিয়ের দিনেই সন্তান প্রসব, তোলপাড়

image
Sat, January 27
08:37 2018

ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি।।

দোয়ারাবাজারে ১ম স্বামির মৃত্যুর ৯বছর পর অনাগত সন্তানের পিতৃত্বের দাবিতে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে বিয়ে অনুষ্ঠান শুরুর আগেই সন্তান প্রসব করলেন এক মহিলা।

বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক চা ল্যের সৃষ্ঠি করেছে। জানা যায়, গত ২৫জানুয়ারি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২য় তলার ১৫নং ওয়ার্ডে এক পুত্র সন্তান প্রসব করেছেন উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের ঘিলাছড়া গ্রামের সফিনা বেগম (৩৮)। তার স্বামি একই গ্রামের কলমধর আলী প্রায় ৯বছর আগে মৃত্যুবরণ করেন। কলমধর আলীর ঔরসজাত ২পুত্র ও ২কন্যা সন্তানের মধ্যে বড় মেয়েকে বিয়ে দেয়া হয়েছে।

একপর্যায়ে তার পেটে অনাগত সন্তানের পিতৃত্বের দাবিতে ভাসুর হাজি তৈয়ব আলীর বাড়িতে গ্রামবাসিকে জড়ো করে। ২৩জানুয়ারি গ্রামের বিশিষ্ট মুরব্বি হাজি ইসলাম উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত গ্রামবাসির সভায় উপস্থিত ছিলেন, বাবুল মিয়া, লয়লুছ খান, আলাল মিয়া, ময়না মিয়া, বতুল্লাহ, আতাউর রহমান, ছায়াদুর রহমান, ছমির উদ্দিনসহগ্রামের সর্বস্তরের লোকজন।

সভায় সফিনা বেগম ঘিলাছড়া গ্রামের মৃত চান্দালীর পুত্র ৪পুত্র ও ২কন্যা সন্তানের জনক ধন মিয়ার বিরুদ্ধে অসামাজিকতার অভিযোগ করেন। এসময় ধন মিয়া গ্রামবাসির কাছে নিজের অপকর্মের স্বীকারোক্তি দিলে পরের দিন ২৪জানুয়ারি সফিনার সাথে তার বিয়ের দিন তারিখ ধার্য্য করা হয়। কিন্তু ২৪জানুয়ারি বিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন শুরু করলে সফিনা বেগমের প্রসব ব্যথা শুরু হলে এটি পন্ডু হয়ে যায়।

এদিকে প্রসব ব্যথা শুরুর পর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর ২৫জানুয়ারি সফিনা বেগম এক ফুটফুটে পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। তবে সভার সিদ্ধান্ত মতে ধন মিয়া হাসপাতালের যাবতীয় ব্যয়ভার বহন করে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এব্যাপারে নরসিংপুর ইউপি চেয়ারম্যান নূর উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

লেখাটি ১০১৯ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৪৮৭৪২৩৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৭৯ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা