খেলাধুলা

বাইসাইকেল চালিয়ে দেশ ভ্রমণ, দুই তরুণের লক্ষ,,,,,,,,,,,,,,

image
Mon, April 2
02:46 2018

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

সন্ত্রাস, মাদক, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধসহ বিভিন্ন আহবান জানিয়ে দেশের ৬৪ জেলায় বাইসাইকেল চালিয়ে ভ্রমণ করার উদ্দেশ্যে বের হয়েছে অদম্য পরিশ্রমী দুই তরুণ।

তারা হলেন, লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের নুরুল ইসলামের ছেলে রাকিবুল ইসলাম রাকিব (১৭) ও বিনয় কুমার মোহন্তর ছেলে মধু মিলন মোহন্ত(১৭)।

জানাগেছে, ওই অদম্য দুই তরুণ গত রোববার (১১ মার্চ) লালমনিরহাট জেলা থেকে যাত্রা শুরু করেন। এর মধ্য ১৫টি জেলা পরিভ্রমণ করেছেন তারা।

লাল বাইসাইকেল, লাল চশমা, লালবাঁশি, হাতে লাল হ্যান্ড মাইক আর লাল সবুজের পতাকা নিয়ে ঘুরছেন রাকিব ও মধু মিলন। যেন লাল রং দিয়ে মাদক, বাল্যবিবাহের বিপদকেই জানান দিচ্ছেন সবার মাঝে। সাইকেলের সামনে পিছনে লেখা রয়েছে তার যাত্রার উদ্দেশ্য। রাস্তায় কোথাও দাঁড়ালেই লোকজনকে বলছেন মাদক ও বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে।
দেশের প্রতিটি জেলা উপজেলা ঘুরে প্রচার করছেন তারা। প্রতিটি জেলা উপজেলার যাত্রাপথের বিভিন্ন স্কুলে লিফলেট বিতরণ করেন মাদক, বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে। তাদের ব্যতিক্রমী উপস্থাপনা মনযোগ দিয়ে শোনে স্কুলের কোমলমতি ছাত্রছাত্রীরা।

রাকিব ও মধু মিলন জানান, বর্তমান সমাজে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা মাদক নেশাগ্রস্তা ও অল্প বয়সে বাল্যবিবাহে
হচ্ছে। বিয়ের পরের বছর না হতেই তাদের জীবনের করুণ পরিণতি নেমে আসে।
সারাদেশের মানুষকে মাদক, বাল্যবিবাহের হাত থেকে মুক্ত করতে দেশব্যাপী স্কুলগুলিতে প্রচার চালানোর।

উত্তরবাংলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ এএসএম মনোওয়ারুল ইসলাম বলেন, রাকিব ও মধু মিলন যেমন তাদের কাজকর্ম ফেলে মাদক বাল্যবিবাহের মত সামাজিক ব্যাধি দূর করতে সারাদেশ চষে বেড়াচ্ছেন। তেমনি আমাদের প্রত্যেকেরই উচিত নিজ নিজ এলাকায় সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা। সামাজিক ও পরিবারিকভাবে সচেতন না হলে মাদক বাল্য বিয়ে বন্ধ করা সম্ভব না। প্রতি গ্রামে একজন করে তাদের মত তরুণ প্রয়োজন বলে মনে করি।

রাকিব ও মধু মিলন বর্তমানে সিরাজগঞ্জ সহ ১৫ টি জেলার বিভিন্ন স্কুলে মাদক বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ প্রচারণা শেষে শনিবার (৩১ মার্চ) সকালে রওনা হন পার্শ্ববর্তি ১৬তম জেলা পাবনার উদ্দেশ্যে। সম্পূর্ণ তাদের উদ্যোগে এ প্রচারাভিযানকে স্বাগত জানিয়েছেন সকলে।

লেখাটি ৭২ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৬৯৭০২৩০৯

অনলাইন ভোট

image
ধর্ষণ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় আপনি কি মনে করেন ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৩২ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা