রাজনীতি

নওগাঁয় এইচএসসি ইংরেজী ২য় পত্রের পরীক্ষায় ব্যাপক নকলের অভিযোগ

image
Sat, April 7
10:20 2018

মোঃ খালেদ বিন ফিরোজ, নওগাঁ:

চলতি এইচএসসি (কারিগরী) ইংরেজী দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষায় নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর সিদ্দিকীয় সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে ব্যাপক নকলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা সেখানে তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহমুদা পারভিন তাদের সঙ্গে অসদাচরণ করেন। এছাড়া সাংবাদিকদের পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের এখতিয়ার নেই বলেও জানান তিনি।

জানা গেছে, নজিপুর সিদ্দিকীয়া সিনিয়র মাদরাসা কেন্দ্রে ১৫৮ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছেন। এর মধ্যে ২৩ জন বিজিবি সদস্য রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নজিপুর সিদ্দিকীয় সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে ব্যাপক নকল করা হচ্ছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে স্থানীয় তিন-চারজন সংবাদিক সেখানে যান। এ সময় দায়িত্বরত পুলিশ ও হলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপজেলা ভারপ্রাপ্ত পরিসংখ্যান কর্মকর্তা নকলের কাগজ কুড়াতে শুরু করেন।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানার পর কেন্দ্রে ছুটে আসেন। পরীক্ষার হলে সংবাদকর্মীদের প্রবেশের এখতিয়ার নেই এমন কথা বলে কেন্দ্র থেকে সাংবাদিকদের চলে যেতে বলেন।

স্থানীয়রা জানান, দু’তলা ভবনের নিচতলায় হলের পেছনের প্রায় প্রতিটি জানালার গ্রিলের সঙ্গে সুতা বিশেষ কায়দায় বই ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। সুতা টেনে বই নিয়ে পাতা ছিঁড়ে নকল হিসেবে ব্যবহার করছেন পরীক্ষার্থীরা। এছাড়া হলের চারপাশে যত্রতত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বই ও গাইডের পাতা। অবাধে পরীক্ষার্থীরা নকল করলেও হলে দায়িত্বরত শিক্ষক, হল সুপার ও প্রশাসন নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছেন।

এ বিষয়ে হল সুপার ও নজিপুর কারিগরী কলেজের অধ্যক্ষ রকিব উদ্দিনর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকেন।

অপরদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা পারভিন সাংবাদিকদের সঙ্গে অসদাচারণ করার অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ওই কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা নকল করছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে ছুটে যাই। কিন্তু কোনো কিছুই পাওয়া যায়নি। বরং হলে দায়িত্বরত শিক্ষক, হল সুপারকে পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি অনাকাঙ্ক্ষিত। এ বিষয়ে তিনি খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

লেখাটি ২০৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৬৯৭০১৮৯৪

অনলাইন ভোট

image
ধর্ষণ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় আপনি কি মনে করেন ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৩২ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা