রাজনীতি

বিদ্যমান মুক্তিযোদ্ধা কোটা অযৌক্তিক: এরশাদ

image
Sun, April 15
01:52 2018

নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম:

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ বলেছেন, আগামী সাধারণ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি এককভাবে অংশ নেবে এবং ৩০০ আসনেই প্রার্থী দেবে।

তিনি বলেন, অন্যদের সঙ্গে আমরা আর জোটবদ্ধ নই। জাতীয় পার্টি একাই সাধারণ নির্বাচনে অংশ নেবে।

চারদিনের সফরে শনিবার দুপুরে ঢাকা থেকে রংপুরে পৌঁছে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারি চাকরিতে কোটা পুরোপুরি তুলে দেওয়া ঠিক হবে না উল্লেখ করে এরশাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা পদ্ধতি তুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। যদিও এটা করা ঠিক হবে না। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য একটি কোটা অবশ্যই রাখা উচিত।

তিনি আরও বলেন, বিদ্যমান মুক্তিযোদ্ধা কোটা অযৌক্তিক। কোটার অনুপাত অবশ্যই সামঞ্জস্য করা উচিত। ক্ষমতায় থাকার সময় তিনি কোটা পদ্ধতির প্রচলন করেছিলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, পুলিশ বাহিনীতে চাকরি পেতে চাকরিপ্রত্যাশীদের ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা দিতে হয়। ওই টাকা দেওয়ার পরও কেউ চাকরি পাবেন সেই নিশ্চয়তা নেই।

এরশাদ বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্য সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে।

পৃথক নানা ইস্যুতে আওয়ামী লীগ জনপ্রিয়তা হারিয়েছে দাবি করে এরশাদ বলেন, তারা (আওয়ামী লীগ) এখন দুর্বল অবস্থায় রয়েছে। আর বিএনপি নির্বাচনে আসুক না আসুক জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ নেবে। বিএনপির অবস্থা ভালো না। রংপুরসহ সারাদেশে জাতীয় পার্টির গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসবে।

এ সময় রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, এলজিআরডি ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এসং পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার উপস্থিত ছিলেন।

লেখাটি ১২৯ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৫১০১৩৩৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৭৯ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা