রাজনীতি

মেহগনি ফুলের অদেখা সৌন্দর্য

image
Sun, April 15
02:07 2018

মীর ইমরান মাহমুদ, তালা (সাতক্ষীরা):

ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দানার মতো দেখতে ‘মেহগনি ফুল’। গাছের নিচে প্রায়ই পড়ে থাকতে দেখ যায় ফুলগুলো। দূর থেকে দেখলে মনে হয়, ধূসর মাটি যেন হঠাৎ রং বদলে হলুদাভ-সবুজে পরিণত হয়েছে।

মাটিতে মেহগনি ফুল পড়ে থাকতে দেখলে দারুণ এক ভালোলাগা জন্মায় মনের ভেতর। কাছে গিয়ে স্পর্শ করে ছোট ছোট ফুলগুলোকে ভালোবাসা জানাতে ইচ্ছে করে। কিন্তু এ ফুলটি এখনও রয়েগেছে আমাদের অনেকেরই অদেখাই। চোখ এড়িয়ে যাওয়া মেহগনি ফুল। আমাদের চারপাশের ফুলের রাজ্যে মেহগনি ফুল আজও পরিচিত হয়ে উঠতে পারেনি। এর অন্যতম কারণ, বিশালাকৃতিময় একটি গাছের অতিক্ষুদ্রকায় ফুল সে। তাছাড়া গাছের উঁচুতে পাতার ভাজে ভাজে ফুটে থাকে নাকফুলের মতো ছোট্ট ফুলগুলো। ফলে তা সহজেই আমাদের চোখ এড়িয়ে যায়। ১৪ এপ্রিল (শনিবার) সকালে সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার ’তালা সরকারি সডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রসস্থ মাঠের মাটিতে মেহগনি ফুলের ছড়িয়ে পড়া সৌন্দর্য দেখে হৃদয়জুড়ায়। সেখানে দেখা মেলে, গাছ থেকে ছোট্ট ফুলগুলোর আপন মনে বাতাসে ঘুরতে ঘুরতে নিচে নেমে আসার অপূর্ব দৃশ্য। মাটিতে ছেয়ে থাকা লাখ লাখ মেহগনি ফুলের সৌন্দর্য দেখে তা কুড়াতে ছুটে এসেছেন বেশ কয়েকজন ফুলপ্রেমী।

আরও একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, মেহগনি ফুলে রয়েছে মৃদু কিন্তু দারুণ সুগন্ধ। অনেকটা শিউলি বা শেফালি ফুলের গন্ধের মতো। বাতাসে ভেসে ভেসে সেই গন্ধ মাঝেমাঝে প্রাকৃতির মাঝে ছড়িয়ে দেয় সতেজতা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন সাংবাদিককে মেহগনি ফুল সম্পর্কে বলেন, এ ফুলটির বৈজ্ঞানিক নাম ঝরিবঃবহরধ সধপৎড়ঢ়যুষষধ এবং ইংরেজি নাম ইরম-ষবধভ গধযড়মধহু বা ঐড়হফঁৎধং গধযড়মধহু। এরা গবষরধপবধব (নিম) পরিবারভুক্ত উদ্ভিদ। মেহগিনি, মেহগেনি, মেহাগিনী নামেও এর পরিচিতি রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বসন্তের শেষের দিকে থেকে মেহগনি গাছে অসংখ্য ফাটে ছোট ছোট ফুল ফুটতে শুরুকরে। তবে ফুলগুলো খুব ছোট হওয়ায় সহজে চোখ পড়ে না। ‘মেলিয়েসি’ পরিবারের ফুলগুলো খুব ছোট আকৃতিরই হয়। পাপড়ির সংখ্যা পাঁচটি এবং পাপড়িগুলো সংযুক্ত থাকে। পুংদলগুলো গর্ভপত্রের চারদিকে টিউব আকারে সংযুক্ত থাকে। টিউবের মাথায় পুংকেশর থাকে। পুংকেশরের রং হালকা লাল। ফুলের গর্ভমুন্ডটা অনেকটা থালার মতো। ফুলের রং অনেকটা ফ্যাকাসে। জানা যায়, মেহগনির জন্মস্থান বাংলাদেশে দেশে নয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার দক্ষিণে এ গাছগুলো প্রাকৃতিকভাবে জন্মায়। এর আদি নিবাস উত্তর আমেরিকায়। ইউরোপিয়ান বণিকদের মাধ্যমে গাছটি ভারতসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে। মেহগনি আমাদের দেশের আদি গাছ না হলেও, তা এখন আর বিদেশি গাছ বলে মনেহয় না উদ্ভিদবিদ জসীম উদ্দিনের কাছে। মেহগনি গাছের রয়েছে ভেজষ গুণাগুন। এটি ডায়াবেটিক রোগিদের সুগার নিয়ন্ত্রণসহ হজমশক্তি বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে বলেও জানা যায়।

লেখাটি ৬৬ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৫১০১১৯৯

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৭৯ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা