রাজনীতি

কি দোষ ছিলো মৃত নবজাতকের? দাফন না দিয়ে রাতের অন্ধকারে ফেলে দিয়েছিল নানু

image
Fri, June 1
04:21 2018

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

কি দোষ ছিলো সেই মৃত নবজাতকের! এম্বুলেন্স মৃত সন্তান জন্ম হওয়ায় দাফন না দিয়ে রাতের অন্ধকারে ফেলে পালিয়ে গিয়েছিলেন তার নানু। কি ছিলো সেই শিশুটির পাপ! জন্ম নাকি মৃত্যু। আর কেনই বা শিশুটির নানু তাকে দাফন না দিয়ে কোন ভয়ে ফেলে পালিয়ে গিয়েছিলো।

কে দিবে এর উত্তর, তা কারও জানা নেই। এ যেন আদিম যুগের সেই নিষ্ঠুর বর্বরতাকেও হার মানাচ্ছে। এদিকে ঘটনাটি প্রকাশ পাওয়া এলাকাজুড়ে চলছে সমালোচনার ঝড়। সৃষ্টি হয়েছে চাঞ্চল্যকর অবস্থা।

আর এই নিষ্ঠুর অমানুবিক ঘটনাটি ঘটেছিলো উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায়।

গত রোববার সকালে উপজেলার মেডিকেলের মেইন ফটকের কাজ থেকে মরদেহটি উদ্ধার সেই নবজাতকের পরিচয় মিলেছে। ঘটনার পর থেকে সেই নবজাতকের নানু সনে আলী পলাতক রয়েছে বলে এলাকাবাসী জানান।

এলাবাসী জানান, ঐ উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের আদর্শ গ্রাম এলাকার সনে আলী মেয়ে (২০) গত শনিবার রাত ১টায় প্রসব বেদনা উঠলে তাকে হাতীবান্ধা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়া হয়। সেসময় মেডিকেলের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রুগী অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। পরে সে রোগী নিয়ে মাইক্রোযোগে রংপুর যাওয়ার পথে মেডিকেল মোড়ের উত্তরে রেল গেটের এলাকায় মাইক্রোবাসের ভিতরে মৃত সন্তান প্রসব করেন ওই নারী। পরে মেয়ের শশুর মৃত সন্তানকে বেয়াই সনে আলীকে দিয়ে বলেন যে, তাকে বাড়ি নিয়ে গিয়ে দাফন করতে। কিন্তু সনে আলী সেই মৃত সন্তানটিকে হাতীবান্ধা মেডিকেলের মেইন ফটকের কাছে রেখে পালিয়ে যান। ওই রাতেই অসুস্থ অবস্থার সনে আলীর মেয়েকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান হয়। পরদিন সকালে স্থানীয় লোকেরা শিশুটিকে কাপড়ে মোড়ানো অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে থানায় খরব দেন। পুলিশ এসে নবজাতকটি উদ্ধারের পর সনে আলী গা ঢাকা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য ঐ সনে আলী তার মেয়েকে ৩ বছর আগে পাটগ্রাম উপজেলার জোংড়া ইউনিয়নে বিবাহ দেন।

মাইক্রোবাসের ড্রাইভার নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমার গাড়িতে মৃত সন্তান প্রসব করেছে পরে কি হয়েছে তা আমি জানিনা। আমি রুগী নিয়ে রংপুরে আসি।

হাতীবান্ধা থানার উপ-পরিদর্শক এস আই আব্দুল গণি বলেন, ইউডি মামলা মাধ্যমে ওই নবজাতকের মরদেহ দাফন করা হয়েছে।

লেখাটি ২৭৮ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৩১১৮৩০৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৪৩ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা