রাজনীতি

৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে বিয়ে করে বিপাকে শিক্ষক!

image
Wed, June 6
04:23 2018

ইখতিয়ার উদ্দীন আজাদ:

ক্লাস নিতে গিয়ে শিক্ষকের নজরে পড়ে যায় ১৪ বছর বয়সী অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। এর পর তাকে প্রথমে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হন ওই শিক্ষক। পরে মেয়ের বাবাকে বুঝিয়ে বিয়ে করেন। ঘটনাটি নাটোর জেলার জোনাইল উপজেলার। স্কুল শিক্ষক সাইফুল ইসলাম বিয়ে করেছেন ছাত্রী রিয়া খাতুনকে।

অাজ বাল্য বধূকে ঘরে তুলবেন তিনি। রোববার মধ্যরাতে নিকট আত্মীয়দের সাথে নিয়ে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন তিনি।

সাইফুল ইসলাম (২৮) উপজেলার জোনাইল এম এল উচ্চ বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন শিক্ষক ও দারিকুশি গ্রামের রহিম ভূঁইয়ার ছেলে।

জানা যায়, অষ্টম শ্রেণির ক্লাস নিতে গিয়ে সাইফুল ইসলামের নজর পড়ে রিয়া খাতুনের প্রতি। এর পর তাকেপ্রেমের প্রস্তাব দেন।

ব্যর্থ হয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেন রিয়ার বাবা গোবিন্দপুর গ্রামের নুরুল হোসেন নুরুর কাছে। ছেলে হিসাববিজ্ঞানে মাস্টার্স পাস ও স্কুল শিক্ষক। অগত্যা বাবা ছেলের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিতে পারেনি। অবশেষে মেয়ের অমতেই জোর করে বিয়ে দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে শিক্ষক সাইফুল ইসলাম জানান, পছন্দ হয়েছে তাই কলেমা পড়িয়ে রেখেছি।

এম এল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আশিকুর জামান বলেন, বুঝতেই পারি নাই এমন ঘটনা ঘটবে। এ ঘটনার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে আর স্কুলে আসতে দেয়া হবে না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আনোয়ার পারভেজ জানান, ওই শিক্ষক উচ্চ শিক্ষিত হয়েও দেশের প্রচলিত আইন ভঙ্গ করেছেন। এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

লেখাটি ৩৫৮ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৮৪৭০১৮৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ১১০ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা
Changer.com - Instant Exchanger