রাজনীতি

র‍্যাব কর্মকর্তারা জানতে চান, কিসের জন্য আন্দোলন? এর উদ্দেশ্য কী?

image
Thu, June 7
10:27 2018

নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম:

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার দাবি করেছেন, তাঁকে কালো কাপড়ে চোখমুখ বেঁধে হাতকড়া পরিয়ে তুলে নেওয়া হয়েছিল। পরে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে রাতেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর রিপোটার্স ইউনিটির সাগর–রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন। গতকাল বুধবার ইমরান এইচ সরকারকে তুলে নেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এক সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে গণজাগরণ মঞ্চ।

ইমরান দাবি করেন, কালো কাপড় দিয়ে চোখ–মুখ বেঁধে হাতকড়া পরিয়ে তাঁকে তুলে নিয়ে র‍্যাব-৩–এর কার্যালয়ে নেওয়া হয়। এরপর র‍্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এলে কালো কাপড় ও হাতকড়া খুলে দেওয়া হয়। র‍্যাবের কর্মকর্তারা তাঁর সঙ্গে আলোচনা করতে চান বলে জানান। তাঁরা জানতে চান, কিসের জন্য আন্দোলন করছেন? এর উদ্দেশ্য কী? একপর্যায়ে র‍্যাব কর্মকর্তারা তাঁদের বক্তব্যে মাদকবিরোধী অভিযানের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করেন। মাদকের বিরুদ্ধে যে অভিযান চলছে, তার যৌক্তিকতা তুলে ধরতে চান।

ইমরান জানান, তিনি র‍্যাবের কর্মকর্তাদের বলেছেন, মাদকের বিরুদ্ধে যেমন তাঁরা সোচ্চার, তেমনই মাদকবিরোধী অভিযানের নামে যে বিচারবর্হিভূত হত্যাকাণ্ড ঘটছে, তার বিরুদ্ধেও তাঁরা সোচ্চার। এ কথাটি তিনি তাঁদের বোঝানোর চেষ্টা করেন।

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র বলেন, যে প্রক্রিয়ায় তাঁকে তুলে নেওয়া হয়েছে, সেটি কোনোভাবেই কাম্য নয়। শুধু প্রতিবাদ করার জন্য একটি প্রতিবাদ সভা থেকে কোনো ওয়ারেন্ট ছাড়া সিনেম্যাটিক স্টাইলে তুলে নেওয়ার বিষয়টি প্রত্যাশিত নয়।’

ইমরান বলেন, শাহবাগ থানার পুলিশ এবং ঢাকা মহানগর পুলিশকে (ডিএমপি) লিখিতভাবে অবহিত করেই তাঁরা সমাবেশের আয়োজন করেছিলেন। তাই অনুমতি নেওয়া হয়নি বলে যে দাবি করা হয়েছে, তা সঠিক নয়। অনুমতি নেওয়া হয়েছে কি না, এটা দেখার দায়িত্ব র‍্যাবের না, এটা পুলিশের।

সংবাদ সম্মলেনে ডিএমপির বরাবর পাঠানো কর্মসূচির অবগতি ও নিরাপত্তার আবেদনপত্রের একটি কপি দেখান ইমরান।

সংবাদ সম্মেলনে মানবাধিকারকর্মী খুশি কবীর বলেন, বিচারব্যবস্থাকে পাশ কাটিয়ে নিজের হাতে যেভাবে হত্যা করা হচ্ছে, এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা সব নাগরিকের নৈতিক দায়িত্ব।

তুলে নেওয়ার পর তাঁকে কখন ছাড়া হয়—এমন প্রশ্নের জবাবে ইমরান এইচ সরকার বলেন, তুলে নেওয়ার পর তাঁর বোন ও ভাইয়ের ফোন নম্বর নেন র‍্যাবের কর্মকর্তারা। তাঁদের ডেকে নেওয়া হয়। এরপর তাঁদের জিম্মায় রাতে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এদিকে ইমরানকে আটক ও নেতা–কর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে আজ বিকেল চারটায় প্রতিবাদ সমাবেশের আয়েজান করেছে গণজাগরণ মঞ্চ।

সংবাদ সম্মেলন সঞ্চালনা করেন উদীচীর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জামশেদ আনোয়ার তপন। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি ডি এম জিলানী শুভ।

লেখাটি ৬৬২ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৩১১৮১৬৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৪৩ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা