রাজনীতি

সিএমএইচ দেশমাতা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য সঠিক হাসপাতাল নয়

image
Wed, June 13
09:17 2018

মেজর (অব.) মো. আখতারুজ্জামান:

সিএমএইচে মুলত শারীরিক ভাবে যোগ্য স্বশশ্রবাহিনীর অফিসার, জুনিয়র অফিসার ও সাধারন সৈনিকদের যারা সামান্য অসুখ বিসুখে অসুস্থ হয়ে গেলে তাদের সাময়িক চিকিৎসা করা হয়।

সিএমএইচে জটিল মেডিক্যাল বিষয়ক কোন রোগের উন্নত চিরিৎসার ব্যাবস্থা নাই এবং ভাল চিরিৎসকও নাই। সাধারনত প্রতি ৩ বছর পর পর চিকিৎসক পরিবর্তন হয়। ফলে সিএমএইচে দক্ষ ও উচ্চ অভিজ্ঞ চিকিৎসক তেমন থাকে না।

যার ফলে এমন কি অবসর প্রাপ্ত অফিসারদের বয়স্কজনিত জটিল চিকিৎসাও সিএমএইচ দিতে পারে না এবং দিলেও ফলাফল খুব করুন হয় এবং বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ক্যাজুয়েলটি হয়ে যায়। এটি সিএমএইচের কোন দোষ নয় , এটি সিএমএইচের সীমাবদ্ধতা।

মেজিক্যাল চিরিৎসার জটিল রোগের চিকিৎসা দেয়ার ক্ষমতা সিএমএইচে খুবই অপ্রতুল। তবে অস্থি চিকিৎসা তথা যে কোন অর্থপেডিক্স রোগের জন্য সিএমএইচ সবচেয়ে সেরা হাসপাতাল। খেলাধুলায়, দুর্ঘটনায়, যুদ্ধের প্রশিক্ষনে আহত হয়ে অস্থি ভেংগে গেলে বা কোন জটিলতা দেখা দিলে বা কোন কারনে বা যুদ্ধে গুলি, গোলায় বা ধারালো অস্ত্রে আহত হয়ে দেহের অস্থি ভেঙ্গে গিয়ে প্রচুর রক্ত ক্ষরনে জতই জটিলভাবে আবত হোক না কেন এই রকম রোগীদের অত্যন্ত জটিল অস্ত্রপ্রচার করে সারিয়ে তুলতে সিএমএইচের সার্জনদের জুরী নাই।

কিন্তু দেশমাতার খালেদা জিয়ার রোগ কোন সার্জিক্যাল বা অর্থপেডিক্স নয় যে সিএমএইচে উনার চিকিৎসার কোন সুযোগ আছে? তবে যদি চিকিৎসার নামে কাউকে বন্ধি করে জনগণের কাছ থেকে সম্পুর্ন নিসংগ করে দিতে চায় যেমন করা হয়ে ছিল ২০১৪ সনে জেনারেল এরশাদকে তা হলে সেটা ভিন্ন কথা!! দেশমাতা খালেদা জিয়া জটিল মেডিক্যাল রোগের রোগী।

উনার চিকিৎসার জন্য অবস্যই উন্নত মেডিক্যাল হাসপাতাল নেয়া দরকার যেখানে সুন্দর খোলামেলা পরিবেশে আধুনিক উন্নত চিকিৎসা দেয়ার সুযোগ আছে এবং সেই হাসপাতালের উপর দেশমাতার আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে। তাই সরকারের এই বিভিন্ন ওজর আপত্তি তুলে সময় নষ্ট না করে অনতিবিলম্বে উনার পছন্দমত হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া উচিত।

অন্যথায় আমি দলের নেতৃবৃন্দের কাছে অনুরোধ করবো ঈদের দিন বিক্ষোভ কর্মসুচি দিন যাতে ঈদের নামাজের পরপরই বিএনপির সকল নেতাকর্মীরা একযোগে যে যেখানে আছে সেখানেই মিছিল নিয়ে বেরিয়ে পড়বে এবং দেশমাতার মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন নেতাকর্মীরা মিছিল জারী রাখবে।

দেশমাতার কারারুদ্ধের প্রতিবাদে বিএনপির নেতা কর্মীরা ঈদের নামাজ ছাড়া বাকী সব আনুষ্টানিকতা বর্জন করবে।

সবাইকে ধন্যবাদ।

লেখক: সাবেক সংসদ সদস্য।

লেখাটি ১০৩০ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৩২৮০৯৪৯

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৫১ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা