রাজনীতি

এবার স্বামীর পরকীয়ার প্রতিশোধ নিলেন পুরুষাঙ্গ কর্তনের মাধ্যমে....!

image
Sat, June 23
11:00 2018

ইখতিয়ার উদ্দীন আজাদ, নওগাঁ প্রতিনিধি:

এবার স্বামীর পরকীয়ার প্রতিশোধ নিলেন স্ত্রী অবাক এক ঘটনার মাধ্যমে। স্বামীর লিঙ্গ কাটার পর চিৎকারে ছুটে আসে এলাকাবাসী।

নওগাঁর বদলগাছীতে স্বামীর লিঙ্গ কর্তন করেছে স্ত্রী রিতা রানী (২৭)। আহত স্বামী উপেন চন্দ্র (৩২) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার পর ওই গৃহবধুকে পুলিশ আটক করেছে। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বিলাশবাড়ি ইউনিয়নের চকনরশিং গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানী সূত্রে জানা যায়, দুই সন্তানের জনক উপেন চন্দ্র। দীর্ঘদিন থেকে উপেন চন্দ্র জেলার পত্নীতলা উপজেলার নজিপুরের পূর্ণিমা রাণী নামে এক বিধবা মহিলার সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। স্ত্রী রিতা রানী অনেক নিষেধ করার পরও স্বামী তা অব্যাহত রাখে। গত কয়েকদিন পূর্বে গ্রামে প্রতিবেশীর এক বিয়ের অনুষ্ঠানে এসে পূর্ণিমা রানীর সঙ্গে উপেন চন্দ্র অনৈতিক কার্যকলাপে লিপ্ত হলে স্ত্রী রিতা রানী তা দেখে ফেলেন।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ চলছিল। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে উপেন চন্দ্র ঘুমিয়ে গেলে স্ত্রী রিতা রাণী ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্বামীর লিঙ্গ কেটে (শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন) ফেলেন। এরপর উপেন চন্দ্রের চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে আসলে বিষয়টি বুঝতে পারে। তাৎক্ষনিক তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবণতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) শাহিনুর ইসলাম জানান, ঘটনার পর গৃহবধূ রিতা রাণীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আহতের মামা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

লেখাটি ১৯৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৫১০২৬৮৯

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ৭৯ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা