রাজনীতি

দেশমাতার মুক্তির দাবীতে আমরন অনশন চান মেজর আখতার

image
Tue, July 3
07:58 2018

মেজর (অব.) মো. আখতারুজ্জামান:

দেশমাতার মুক্তির দাবীতে আমরন অনশন হতে হবে।
দেশমাতা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে আহুত সমাবেশ ও অনশন কর্মসূচি সফল করুন এবং অনশন কর্মসূচি দেশমাতার মুক্তি বা অনশনকারীদের মৃত্যু পর্যন্ত অব্যহত রাখুন। দলের মহাসচিব নিম্নলিখিত কর্মসূচি ঘোষনা করেছেন:

১। আগামী ৫ জুলাই ২০১৮ বৃহস্পতিবার সারাদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ।

২। ৯ জুলাই ২০১৮ সোমবার ঢাকায় প্তীকী অনশন কর্মসূচি পালন।

আগামী ৫ জুলাই বৃহস্পতিবার সারাদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ এবং ৯ জুলাই সোমবার ঢাকায় প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করবে দলটি।

দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের আহুত কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য নিম্নলিখিত পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে বলে দলের তৃনমূলের কর্মীরা মনে করেন:

১। সারাদেশের প্রতিবাদ কর্মসূচির আওতায় প্রতিটি উপজেলায় কর্মসূচি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দেয়ার এবং সবার অংশগ্রহনের সুযোগ করে দেয়ার লক্ষে প্রতিটি জেলা সদরে সারা জেলার বিএনপির সকল নেতাকর্মীসহ প্রতিটি উপজেলা থেকে জনগণকে নিয়ে জেলা বিএনপির নেতৃত্বে একটি ব্যাপক জনসমাবেশ করা হোক। প্রয়োজনে পায়ে হেঠে বিভিন্ন অলিগলি ও গ্রামের মেঠো পথ দিয়ে জেলা সদরে সবাইকে পৌঁছাতেই হবে। পথে যত বাধাই আসুক তা কৌশলে এড়িয়ে জনসমাবেশ সফল করতে হবে। যেহেতু উপজেলা পর্যায়ে পুলিশ এবং শাসকদল বিএনপির সকল নেতাদের চিনে। তাছাড়া স্থানীয় পুলিশ তার পছন্দমত থানায় থাকার কারনে সেখানে পুলিশের নিজস্ব নেটওয়ার্ক গড়ে উঠে যার ফলে উপজেলা পর্যায়ে আন্দোলন সফল করা কঠিন হয়ে যায় কিন্তু জেলা পর্যায়ে সে সমস্যা থাকে না।

২। ৯ জুলাই ২০১৮ সোমবারের প্রতীকী অনশন কর্মসূচীকে আমরন অনশন কর্মসূচিতে নিয়ে যেতে হবে। আমরন অনশন কর্মসুচিতে ৫০ বছরের বেশি বয়স্ক নেতা কর্মীরা আমরন অনশনে দ্রুত বিরুপ পরিস্থিতির কারন হতে পারে তাই বয়স্ক কর্মীদেরকে আমরন অনশনের কর্মসূচির বাইরে রেখে ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল শ্রমিক সংগঠনসহ বিএনপির ৪০ বছরের কম বয়সীর সকল নেতাকর্মীদেরকে আমরন অনশনে অংশগ্রহনে সক্রীয় ভুমিকা রাখতে হবে। তবে বয়স্ক সকল নেতাকর্মীদেরকে অবস্যই প্রতিদিন অন্তত ৮ ঘন্টা বিরতি দিয়ে দিয়ে আমরন অনশনকারীদের সঙ্গে অনশনে অংশগ্রহন করতে হবে।

৩। ২টি কর্মসুচী শান্তিপূর্ণ হবে এবং দেশমাতার মুক্তির শ্লোগান ছাড়া অন্য কোন শ্লোগান বা অন্য কোন নেতার মুক্তি বা তাদের নামে শ্লোগান হবে না।


দেশমাতার মুক্তি আন্দোলনের খবর দেশের পত্রপত্রিকায় তেমন গুরুত্ব দিয়ে প্রচারিত হচ্ছে না।

সরকার অত্যান্ত সুপরিকল্পিতভাবে দেশমাতার মুক্তি আন্দেলনের খবরগুলিকে নিয়ন্ত্রন করছে তাই সামাজিক মাধ্যমগুলিতে দেশমাতার মুক্তি আন্দোলনের সকল খবর ছড়ায়ে দিতে হবে।

সবাইকে ধন্যবাদ।

লেখক: সাবেক সংসদ সদস্য।

লেখাটি ৪১৯ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৭৯১৫৪২৯

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ১০৫ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা
Changer.com - Instant Exchanger