রাজনীতি

রাস্তার গাছ কাটলেন করলেন মাদ্রাসা সুপার

image
Thu, August 9
02:53 2018

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় দইখাওদা দাখিল মাদ্রাসার সুপার তফের আলীর বিরুদ্ধে সরকারি রাস্তার দুটি তরতাজা মেহগনি গাছ বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। আর এঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেন স্থানীয় এক ইউপি সদস্য।

অভিযোগসুত্রে জানা যায়, উপজেলার দইখাও বাজার সংলগ্ন জেলা পরিষদের পাকা রাস্তার দুটি তরতাজা মেহগনী গাছ (যার বাজার মুল্য ২৫০০ টাকা) বিক্রির উদ্দেশ্যে ডালপালা কাটেন দইখাওয়া এছান মিয়া ও আওলাদ মিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার তফের আলী।

বিষয়টি স্থানীয় লোকজন গোতামারী ইউপি চেয়ারম্যান আবু কাশেম সাবু মিয়াকে জানান। খবর পেয়ে চেয়ারম্যান পরিষদের অন্যন্য সদস্য ও গ্রাম পুলিশ নিয়া ঘটনাস্থলে গিয়ে তফের আলীকে রাস্তার সরকারি গাছ কাটতে নিষেধ করেন। কিন্তু সে নিষেধ না মানলে চেয়ারম্যান সাহেব তফের আলীর হাত হতে গাছ কাটার কুড়াল, কোদাল কেড়ে নিয়ে পরিষদে জমা রাখেন। এ ঘটনায় এলাকার জনসাধারণ অতপর সেদিন রাতেই গোতামারী ৬ নং ইউপি সদস্য বাদী হয়ে তফের আলীর বিরুদ্ধে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

তবে ঐ মাদ্রাসার সুপার আলী এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ঐ দুটি গাছ মাদ্রাসার জমিতে হওয়ায়, আমরা ম্যানেজিং কমিটির রেজুলেশন মোতাবেক হাটে ঢোলাই দিয়ে নিলামে বিক্রি করেছি।

জেলা পরিষদের পাকা রাস্তার ২ফিটের পাশে অবস্থিত গাছ দুটি হওয়া, তা জেলা পরিষদের অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন বোধ করেননি কেন, এবিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ঐ মাদ্রাসার সুপার তফের আলী এবিশয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারেন নি।

এবিষয়ে কথা হলে গোতামারী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম সাবু মিয়া বলেন, মাদ্রাসার সুপার সম্পুর্ণ বেআইনিভাবে বিক্রির উদ্দেশ্যে সরকারি রাস্তার গাছ দুটির ডালপালা কেটেছে। তাই এবিষয়ে এলাকাবাসী অভিযোগ করলে আমি তফের আলীকে গাছ দুটি কাটতে নিষেধ করা সত্যেও তিনি তার ডালপালা কাটেন। পরে এলাকাবাসী চাপে বাধ্য হয়ে আমি গাছ কাটার অস্ত্রপাতি এনে পরিষদে জমা রাখি। তবে সরকারি গাছের ডালপালা কাটার অপরাধে মাদ্রাসা সুপার তফের আলীর বিরুদ্ধে প্রশাসনের প্রতি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান ঐ ইউপি চেয়ারম্যান সাবু মিয়া।

জেলাপরিষদের সরকারি গাছের ডালপালা মাদ্রাসা সুপার কর্তৃক কাটার বিষয়ে ঘটনাস্থলে সরেজমিনে আসা, লালমনিরহাট জেলা পরিষদের প্রফেস সার্ভেয়ার আব্দুস সালামের সাথে এবিষয়ে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঐ মাদ্রাসার সুপার সম্পুর্ণ বেআইনিভাবে সরকারি গাছের ডালপালা কেটেছে, এবিষয়ে জেলাপরিষদের পরামর্শ মোতাবেক ঐ সুপারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এবিষয়ে কথা হলে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উমর ফারুক বলেন, সরকারি গাছের ডালপালা মাদ্রাসার সুপার কর্তৃক কাটার বিষয়ে একটা অভিযোগ থানায় পড়েছে। তিনি আরও বলেন গাছের মালিকানা বিষয়ে বাদী, বিবাদী দুইবপক্ষেই দাবি করছে। বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লেখাটি ২৩৪ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৮৫২১০১৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ১১২ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা
Changer.com - Instant Exchanger