আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি

image
Tue, September 11
03:41 2018

নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম:

হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতকে (আইসিসি) হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বলা হয়েছে, আফগানিস্তানে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে যদি ওই আদালত আমেরিকানদের বিচারের চেষ্টা করে এবং ইসরাইলকে এই আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দেয়ার চেষ্টা করা হয় তাহলে এই আদালতের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। একই সঙ্গে ওয়াশিংটনে অবস্থিত পালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের (পিএলও) দূতাবাস বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এতে বলা হয়, এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন ক্ষমতায় আসার পর প্রথম বক্তব্যে এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি রক্ষণশীল ফেডারেল সোসাইটির সামনে রোববার বক্তব্য রাখেন। এতে বলেন, যে কোন মূল্যে যুক্তরাষ্ট্র তার নাগরিকদের রক্ষা করবে। এই অবৈধ আদালত আমাদের যেসব মিত্রদের বিরুদ্ধে অন্যায়ভাবে বিচার করবে তাদেরও রক্ষা করবে যুক্তরাষ্ট্র।

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আইসিসির যেসব বিচারক এ বিচারের প্রক্রিয়া অনুসরণ করবেন তাদের বিরুদ্ধে অবরোধ সহ কড়া পদক্ষেপ নেবে যুক্তরাষ্ট্র। জন বল্টন বলেন, এরই মধ্যে ইসরাইলের বিরুদ্ধে আইসিসিতে বিচার চাওয়ার কারণে ওয়াশিংটনে পিএলওর দূতাবাস বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ওয়াশিংটনে পিএলওর অফিস বন্ধ করে দেয়ার ফলে আরব ইসরাইল শান্তি প্রক্রিয়ার দরজা বন্ধ হয়ে যাবে বলে তিনি বিশ্বাস করেন না। এই শান্তি প্রক্রিয়া সফল করতে গত কয়েক মাস ধরে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সিনিয়র উপদেষ্টা ও তার জামাই জারেড কুশনার।

ওদিকে যুক্তরাষ্ট্রের এমন পদক্ষেপে ফিলিস্তিনকে আইসিসিতে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে পারবে না বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা। তারা ওয়াশিংটনে পিএলওর দূতাবাস বন্ধ করে দেয়াকে ট্রাম্প প্রশাসনের নতুন কৌশল হিসেবে দেখছেন। তারা মনে করছেন এর মাধ্যমে ওয়াশিংটন ফিলিস্তিনের ওপর নতুন করে চাপ সৃষ্টি করতে চায়। তারা মনে করেন, ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের জন্য জাতিসংঘের এজেন্সিতে যুক্তরাষ্ট্র যে সহায়তা দেয় এবং পূর্ব জেরুজালেমের হাসপাতালগুলোতে যে সহায়তা দেয় তা বাতিল করে তারা নতুন এক চাপ সৃষ্টি করছে।

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তা সায়েব এরেকাট এক বিবৃতিতে বলেছেন, আমরা বার বার বলেছি, ফিলিস্তিনিদের অধিকার বিক্রির জন্য নয়। যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি ও আঘাতের কাছে আমরা ভেঙে যাবো না। ইসরাইলিদের অপরাধের বিষয়ে অবিলম্বে তদন্ত শুরু করার জন্য আমরা আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে অব্যাহতভাবে আবেদন করে যাবো।

ওদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্রশাসনের এমন সব উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে ইসরাইল। তারা ফিলিস্তিনি উদ্যোগের মধ্যে ভুল খোঁজার চেষ্টা করছে। অভিযোগ তুলেছে যে, যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগে দ্বিপক্ষীয় সংলাপকে পাশ কাটাতে ফিলিস্তিন আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে গিয়েছে। একজন ইসরাইলি কর্মকর্তা বলেছেন, ফিলিস্তিনিরা আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে গিয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্র-ইসরাইলের উদ্যোগে সংলাপ প্রত্যাখ্যান করেছে। শান্তি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে এটা উপযুক্ত পথ নয়। তাই এ বিষয়ে পরিষ্কার অবস্থান নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

লেখাটি ৩১৪ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৭৭৮২৩৮৬৪

অনলাইন ভোট

image
মাদক বিরোধী অভিযানের নামে অব্যাহত ক্রসফায়ার সমর্থন করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ১০৫ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা
Changer.com - Instant Exchanger