রাজনীতি

বিড়ি-সিগারেটের দাম বাড়ল

image
Thu, June 6
08:23 2013

চার বছর পর বিড়ির ওপর করের হার বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। বাড়ছে সিগারেটের দামও। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন, তামাকজাত পণ্যের কারণে স্বাস্থ্যঝুঁকি কমাতে ও রাজস্ব আয় বাড়ানোর জন্য সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে বিড়ির ওপর সম্পূরক শুল্কের হার ২০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করা হয়েছে। এ ছাড়া বিড়ির দাম আরও বাড়ানোর জন্য এর ভিত্তিমূল্য (ট্যারিফ ভ্যালু) ৩.১৬ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩.৮৮ টাকা করা হয়েছে (২৫ শলাকার প্যাকেট)। প্রসঙ্গত, বাজেটের আগে আড়াই শ সাংসদ বিড়ি-সিগারেটের দাম বাড়ানোর পক্ষে-বিপক্ষে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে চিঠি দিয়েছিলেন। উল্লেখযোগ্যসংখ্যক সাংসদ বিড়িশ্রমিকদের স্বার্থ রক্ষায় বিড়ির দাম না বাড়ানোর জন্য আধাসরকারি চিঠি দিয়েছিলেন। অর্থমন্ত্রী তাঁর বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন, দেশীয় শিল্পের শ্রমিক স্বার্থ বিবেচনায় নিয়ে বিড়ি খাতের ট্যারিফ মূল্য এবং শুল্কহারে বিগত চারটি অর্থবছরে কোনো সংস্কার বা পরিবর্তন আনা হয়নি। বর্তমান শুল্ক কাঠামো অনুযায়ী ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকার প্যাকেট করসহ মূল্য ৪ টাকা ৩৬ পয়সা এবং ফিল্টারযুক্ত ২০ শলাকার প্রতি প্যাকেট বিড়ির করসহ মোট মূল্য দাঁড়ায় ৪ টাকা ৯৩ পয়সা। সহজলভ্যতার জন্য ব্যাপকসংখ্যক ভোক্তা এর ব্যবহারের সুযোগ নেয় ও স্বাস্থ্যঝুঁকির মধ্যে পড়ে। সবদিক বিবেচনায় বিড়ির বিদ্যমান ট্যারিফ মূল্য এবং শুল্কহার কিছুটা যৌক্তিকীকরণের মাধ্যমে করসহ ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকার প্যাকেটের মূল্য ৫ টাকা ৮০ পয়সা এবং ফিল্টারযুক্ত ২০ শলাকার প্রতি প্যাকেট বিড়ির মূল্য ৬ টাকা ৩০ পয়সা নির্ধারণের প্রস্তাব করছি। এ ছাড়া, সবচেয়ে কম দামি ১০টি সিগারেটের প্যাকেটের দাম ১২ টাকা ১০ পয়সা-১২ টাকা ৪৩ পয়সা থেকে ১৪ টাকা-১৪টাকা ২০ পয়সা করা হয়েছে। সবচেয়ে দামি ১০টি সিগারেটের প্যাকেটের দাম ৬৬ টাকা করা হয়েছিল গত বাজেটে, এবার প্রস্তাব করা হয়েছে ৮০ টাকা। তামাকবিরোধী সংগঠনগুলো বিড়ির দাম বাড়ানোয় সন্তোষ প্রকাশ করেছে। টোব্যাকো ফ্রি কিডসের এ-দেশীয় পরিচালক তাইফুর রহমান বলেছেন, বহু দিন ধরে বিড়ির দাম বাড়ানোর দাবি জানিয়ে আসছিলাম আমরা। এবারই প্রথম সরকার বিষয়টি নজরে এনেছে। কিন্তু জর্দা, গুল সম্পর্কে কিছু না বলায় ও সিগারেটের দাম যথেষ্ট না বাড়ায় খুশি হতে পারছি না আমরা।

লেখাটি ৪৭০ বার পড়া হয়েছে
নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


Share


Related Articles

Comments

ফেসবুক/টুইটার থেকে সরাসরি প্রকাশিত মন্তব্য পাঠকের নিজস্ব ও ব্যক্তিগত মতামতের প্রতিফলন, এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

মোট ভিসিটর সংখ্যা
৬২২৩৩৭২৪

অনলাইন ভোট

image
রোডম্যাপহীন নির্বাচনের দিকে এগোচ্ছে দেশ- মাহমুদুর রহমান মান্নার এ বক্তব্য যথার্থ বলে মনে করেন কি?

আপনার মতামত
হ্যাঁ
না
ভোট দিয়েছেন ২৯ জন

আজকের উক্তি

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা সহায়ক সরকার বিষয়টি রাজনৈতিক, এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা